জীবন থেকে নেওয়া……

কখনও আপনার লাইফের দুজন প্রিয় মানুষকে সামনা সামনি দেখা বা পরিচয় করিয়ে দিবেন না। যেমন স্কুল লাইফের বেস্ট ফ্রেন্ডের সাথে ভার্সিটি লাইফের বেস্ট ফ্রেন্ডকে পরিচয় না করানোই শ্রেয়।

প্রথমত আপনি চাইবেন যে তারা যেন একে অপরকে পছন্দ করে এবং আপনারা তিনজন একত্রে আড্ডা মারতে পারেন। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় দুজন দুজনাকে সহ্য করতে পারেনা। দুইজনকে এক সাথে তাল মিলাতে আপনার অবস্থা কাহিল। এরপর আবার প্রশ্ন আসে আপনি কাকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। দুজনার মধ্যেই এই ক্যালকুলেশন চলতে থাকবে আপনার কাছে কার গুরুত্ব বেশি! দেখা হওয়ার পরের সময়ে দুজন দুজনার সম্পকে একটি কথাও আপনার কাছ থেকে শুনতে চাইবে না

দ্বিতীয়ত তারা যদি বাই এনি চান্স একে অপরকে পছন্দ করে ফেলে, তবে প্যারা দ্বিগুন! দুইজন একত্রে আপনার বারো +বারো =চব্বিশটা বাজিয়ে ফেলবে। দুজনের পচানি একত্রে হজম করতে হবে। আপনাকে না জানিয়ে তারা নিজেদের মধ্যে দেখা করলে আপনার মধ্যে তীব্র জ্বলুনি হবে। একজন যখন আরেকজনের গোপন কথা আপনার কাছে বলবে( যা আপনি নিজে জানেন না) তখন আপনার ইচ্ছে করতেই পারে তার গলা টিপে দিতে।

তৃতীয়ত তাদের একজন ছেলে এবং অপরজন মেয়ে হয়, আর তাদের মধ্যে দৈবক্রমে এফেয়ার হয় তাহলে আপনার জীবন শেষ! তিনজন যখন একসাথে কোথাও যাবেন তখন নিজেকে ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা মনে হবে। তাদের দুজনকে স্পেস দিতে আপনি নিজেই বাহানা করে সরে থাকবেন। দুই দিন পর পর তাদের ঝগড়া আপনাকে মিটাতে হবে। বিয়ের পর তো কথাই নেই, সারাজীবন আপনাকে শুনতে হবে কেন তাদের সম্পর্ক করিয়েছেন (বিশেষত মেয়ে বন্ধুর কাছ থেকে)।

আল্টিমেটলি আপনি দুইজন বন্ধুকেই হারাবেন।

Omar Faruk Rehan
Author: Omar Faruk Rehan

নিজের সম্পর্কে কি লিখবো? পরিচিত হলে নিজেই বুঝে নিবেন

Permanent link to this article: https://www.borgomul.com/omar-faruk-rehan/1427/


মন্তব্য করুন আপনার ফেসবুক প্রোফাইল ব্যবহার করে

1 comments

  1. ei jinis gula ekhane ken likhis?…:)

মন্তব্য করুন

Discover more from বর্গমূল | Borgomul

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading